Featuredনীতি কথা

ভগবান কী সত্যি আছেন? আমরা কেন ভগবানকে দেখতে পাইনা?

আমরা কেন ভগবানকে দেখতে পাইনা?

একজন ধার্মিক ব্যক্তি ট্রেনে করে দূরে কোথাও যাচ্ছিলেন। তার সহযাত্রী ছিলেন একজন উচ্চ শিক্ষিত ব্যক্তি। সেই সহযাত্রীর সাথে ধার্মিক ব্যক্তি বিভিন্ন বিষয়ে আলাপ করছিলেন। সেই আলাপ ধীরে ধীরে ধর্ম বিষয়েও গড়ালো।

হুট করে শিক্ষিত সহযাত্রী ধার্মিক ব্যক্তিকে জিজ্ঞেস করলেন, এই যে আপনারা এতো ভগবান ভগবান করেন! আসলে কী ভগবান আছেন? আপনি কখনও দেখেছেন ভগবানকে?

ধার্মিক ব্যক্তি বললেন, আপনার কী মনে হয়?

সহযাত্রী বললেন, আমি বিশ্বাস করিনা, ভগবান আছেন। কেননা বিজ্ঞান বলে এই পৃথিবী নিজে থেকে সৃষ্টি হয়েছে বিশাল বিস্ফোরণের কারনে। আর পৃথিবী আপনা-আপনিই চলছে।

তখন ধার্মিক ব্যক্তি বললেন, আচ্ছা তাহলে বলুন তো এই ট্রেনটি কীভাবে তৈরি হলো?

তিনি বললেন, কীভাবে আবার! প্রকৌশলীরা করে এই ট্রেনটি বানিয়েছেন।

তখন ধার্মিক ব্যক্তি বললেন, প্রকৌশলীদের কেন এই ট্রেনটি তৈরি করতে হবে? পৃথিবীর সব কিছু যেহেতু নিজে থেকে হচ্ছে, তাহলে নিশ্চয় ট্রেনটিও নিজে থেকে তৈরি হয়েছে!

উচ্চ শিক্ষিত ব্যক্তিটি হু হু করে হেসে উঠলেন আর বললেন, আপনি মশায় বোকার হদ্দ! কিছুই জানেন না। প্রকৌশলী ছাড়া ট্রেন কোনভাবেই বানানো সম্ভব না।

আরো পড়ুনঃ জেনে নিন ১৪২৮ সালের সূর্যগ্রহণ ও চন্দ্রগ্রহণের সময়সূচী

এবার ধার্মিক ব্যক্তিটি মৃদু হাসলেন। তারপর বললেন, ঠিক বলেছেন আমি বোকা! আচ্ছা এই মামুলি ট্রেনটিই যদি কারো সাহায্য ছাড়া নিজ থেকে তৈরি না হতে পারে, তবে এই বিশাল ব্রহ্মাণ্ড, গ্রহ, নক্ষত্র কীভাবে আপনা আপনি তৈরি হতে পারে?

অতি শিক্ষিত ব্যক্তিটি এবার কোন জবাব দিতে পারলেন না। ধার্মিক ব্যক্তি তাকে আবার জিজ্ঞেস করলেন, এই ট্রেনটি নিশ্চয় নিজে থেকেই চলছে?

লোকটি বললেন, এটা সম্ভব নয়। ট্রেন পরিচালনা করার জন্য অবশ্যই একজন দক্ষ চালক প্রয়োজন। দক্ষ চালক ছাড়া ট্রেনটি নিরাপদে গন্তব্যে পৌঁছাতে পারবেনা।

এবার ধার্মিক ব্যক্তি বললেন, একটি সাধারণ ট্রেনই যদি চালকবিহীন চলতে না পারে, তাহলে এই বিশাল বিশ্ব ব্রহ্মাণ্ড কীভাবে কোন চালক ছাড়া চলতে পারে?

আরো পড়ুনঃ শাস্ত্রীয় মতে কোন দিন গর্ভধারণ করলে সু-সন্তান লাভ সম্ভব?

অতি শিক্ষিত লোকটি চুপ করে রইলেন। তাকে চুপ করে থাকতে দেখে ধার্মিক ব্যক্তি তাকে আবার জিজ্ঞেস করলেন, আপনি বলছেন ট্রেনটি একজন চালক চালাচ্ছেন কিন্তু আমি তো চালককে দেখতে পাচ্ছিনা।

লোকটি অনেকক্ষণ পর হু হু করে হেসে উঠলো তারপর বললো, চালক তো ট্রেনের একেবারে সামনে ইঞ্জিনে থাকে। আপনি এখান থেকে তাকে কীভাবে দেখতে পাবেন! তাকে দেখতে হলে এই বগি থেকে নেমে একদম ইঞ্জিনের কাছে যেতে হবে, তবেই তাকে দেখা যাবে।

তখন ধার্মিক ব্যক্তি বললেন, একজন সাধারণ ট্রেন চালককে দেখতে হলে যদি ট্রেন থেকে নেমে ইঞ্জিনের কাছে যেতে হয়, তাহলে এই বিশ্বব্রহ্মাণ্ডের স্রষ্টা ও জগতের পরিপালক মহান ঈশ্বরকে কোন পরিশ্রম না করেই কীভাবে এতো সহজে দেখা যাবে?

আরো দেখুনঃ শিব প্রণাম মন্ত্র

তথাকথিত অতি শিক্ষিত ব্যক্তিটি থম মেরে গেলেন। একদম শুরুতে করা প্রশ্নের উত্তর তিনি একদম হাতেনাতে পেয়ে গেলেন। পরম করুণাময় ভগবানকে দেখতে হলে, আমাদের তাঁকে খুজতে হবে, তাঁকে দেখার যোগ্য হতে হবে। তবেই তিনি আমাদের দেখা দেবেন।

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
error: Content is protected !!