মন্দির

আবুধাবীর প্রথম হিন্দু মন্দির নির্মিত হচ্ছে ভারতীয় স্থাপত্যশৈলী মেনে!

আবুধাবীর প্রথম হিন্দু মন্দির নির্মিত হচ্ছে ভারতীয় স্থাপত্যশৈলী মেনে!

ভারতবর্ষের বাইরে তৈরী হবে মন্দির, কিন্তু ব্যবহার করা হবে না কোন স্টিল বা লোহার সরঞ্জাম। অনেকটা আশ্চর্য মনে হলেও আসলেই সত্যি। মন্দিরটি তৈরী হচ্ছে সংযুক্ত আরব আমিরাত এর রাজধানী আবুধাবী-তে। সংযুক্ত আরব আমিরশাহী এর রাজধানী আবুধাবীতে এই মন্দির বানানোর জন্য ২০১৫ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর প্রথম আরব সফরের সময় সেখানকার সরকার মঞ্জুরি প্রদান করেছিল।

ভারতে মন্দির স্থাপনের ঐতিহ্য অনেক পুরনো। এই ঐতিহ্য মেনেই তৈরী হচ্ছে দৃষ্টিনন্দন এই মন্দিরটি। ইতিমধ্যে মন্দিরটির শিলান্যাস ও ভিত্তি প্রস্তর স্থাপনের কাজ শেষ। সারা পৃথিবীব্যাপী হিন্দু ধার্মিক আর নাগরিক সংগঠন, বিএপিএস স্বামীনারায়ণ সংস্থা এই মন্দিরের নির্মাণ কাজ করছে। ২০১৮ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী দুবাই অপেরা হাউস থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানীতে বোচাসন্ন্যাসী শ্রী অক্ষর পুরুষোত্তম স্বামীনারায়ণ সংস্থা বা বিএপিএস মন্দিরের শিলান্যাস করেছেন। এই বছরের ফেব্রুয়ারীর দিকে মন্দিরের ভিত গড়ার জন্য প্রথম ফ্লাই এ্‌শ ফেলা হয়। বিশাল এই মাইলফলকের স্বাক্ষী হওয়ার জন্য মন্দির প্রাঙ্গনে জড়ো হয়েছিলেন বিশাল সংখ্যক প্রবাসী ভারতীয়।

আরো পড়ুনঃ জানেন কী বৌদ্ধপ্রধান থাইল্যান্ডের জাতীয় গ্রন্থ ‘রামায়ণ’, রাজার উপাধী ‘রাম’

মন্দিরের ভিতের জন্য আনুমানিক ৩০০০ ঘনমিটার ফ্লাই এশ ব্যবহার করা হয় যা এর আগে আরব আমিরশাহী-তে ব্যবহৃত হয়নি। সাধারণত বাসা বাড়িতে ভিত তৈরী করার জন্য কংক্রিট ও স্টীল ব্যবহার করা হয়। কিন্তু ভারতীয় ঐতিহ্যবাহী স্থাপত্যরীতি অনুসার করে এই মন্দিরের ভিত শক্ত করতে কংক্রিট এর সাথে ফ্লাই এ্‌শ ব্যবহার করা হয়েছে।

সম্পূর্ণ মন্দিরটি যেহেতু স্টিল বা লোহার সামগ্রী ছাড়া তৈরী করা হবে তাই ভারতে প্রায় ৩০০০ কারিগর প্রায় ৫০০০ টন ইতালিয়ান মার্বেল পাথরে খোদাই করছেন বিভিন্ন দেবদেবীর প্রতিমূর্তি। এই পাথরগুলো ব্যবহার করা হবে মন্দিরের দেয়ালে। গোলাপী বর্ণের বেলেপাথর দিয়ে মন্দিরের বাইরের দিকটা তৈরী হবে। এজন্য ব্যবহার করা হচ্ছে ১২২৫০ ঘনমিটার বেলেপাথর।

আবুধাবির ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মমদ বিন জায়দ আল নহয়ন। তিনি এই মন্দির নির্মানের জন্য ১৩।৫ একর জমি দান করেছেন। তার সাথে সাথে ইউএই সরকার সমপরিমান জমি প্রদান করেছে মন্দির কর্তৃপক্ষকে যা ব্যবহৃত হবে পার্কিং এর জন্য।

আরো পড়ুনঃ আপনি কি জানেন রথযাত্রার আগে প্রবল অসুস্থ হয়ে পড়েন জগন্নাথদেব?

আরব আমীরশাহীর রাজধানী আবুধাবীতে প্রায় আনুমানিক ৩০ লক্ষ ভারতীয়ের বাস যা ঐখানকার জনসংখ্যার প্রায় ৩০ শতাংশ। এতোবড় হিন্দু জনসংখ্যা থাকার পরও সেখানে ছিল না কোন হিন্দু মন্দির। বসবাসকারী হিন্দুদের তাই পূজা অর্চনা ও বিয়ের জন্য যেতে হত দুবাই এ যা অনেক সময়সাপেক্ষ বিষয়।

আবুধাবি থেকে ৩০ মিনিটের দূরত্বে হাইওয়ে তে ”আবু মুরেখা” নামে একটি জায়গা। এই জায়গায়ই তৈরী হচ্ছে মন্দিরটি। উল্লেখ্য এই মন্দিরে শিব, কৃষ্ণ আর আয়াপ্পা ভগবানের মূর্তি থাকবে। আয়াপ্পা হচ্ছেন বিষ্ণু ভগবানের এক অবতার রূপ। ভারতের কেরলে এই অবতারের পূজা হয়। সর্বসাধারনের জন্য উন্মুক্ত থাকবে মন্দিরটি।

আরো পড়ুনঃ বাড়ির সদর দরজায় স্বস্তিক বা গণেশের ছবি টাঙানো হয় কেন?

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
error: Content is protected !!