Videosদেশে দেশে হিন্দুধর্ম

সংযুক্ত আরব আমিরাতের হিন্দুরা আসলে কেমন আছে?

আরব আমিরাতে হিন্দু

মধ্যপ্রাচ্যের অন্যতম ধনী দেশ সংযুক্ত আরব আমিরাত। এটি মূলত আরব উপদ্বীপের দক্ষিণ-পূর্ব কোণে অবস্থিত সাতটি স্বাধীন রাষ্ট্রের একটি ফেডারেশন। এগুলি একসময় ট্রুসিয়াল স্টেটস নামে পরিচিত ছিল। ১৯৭১ সালে দেশগুলি স্বাধীনতা লাভ করে। প্রতিটি আমিরাত একটি উপকূলীয় জনবসতিকে কেন্দ্র করে আবর্তিত এবং ঐ লোকালয়ের নামেই এর নাম। সংযুক্ত আরব আমিরাতের সাতটি আমিরাতের নাম হল আবুধাবি, আজমান, দুবাই, আল ফুজাইরাহ, রাআস আল খাইমাহ, আশ শারজাহ্ এবং উম্ম আল ক্বাইওয়াইন। আবু ধাবি শহর ফেডারেশনের রাজধানী এবং দুবাই দেশের বৃহত্তম শহর।

আরো পড়ুনঃ বৌদ্ধ প্রধান মিয়ানমারে হিন্দু ধর্ম যেভাবে এখনো টিকে আছে

আরব আমিরাতে বর্তমান জনসংখ্যা প্রায় ৯৬ লক্ষ। এদের মধ্যে ২৭.৮% ভারতীয়, ১২% আমিরাতি, ১০.২% পাকিস্তানী, ৯.৫% বাংলাদেশী। এছাড়া আরো রয়েছে ফিলিপিনো, ইরানিয়ান, মিশরীয় ও চিনা বংশোদ্ভূত মানুষ।

ইসলাম ধর্ম আরব আমিরাতে প্রধান ধর্ম। আমিরাতে বসবাসকারী প্রায় ৭২% মানুষ ইসলাম ধর্ম অনুসরণ করেন। হিন্দু ধর্ম আরব আমিরাতের তৃতীয় বৃহত্তম ধর্ম। আমিরাতের মোট জনসংখ্যার ৬.৬% সনাতন হিন্দু ধর্ম অনুসরণ করেন। অর্থাৎ প্রায় সাড়ে ছয় লক্ষ হিন্দু আরব আমিরাতে বসবাস করেন। তবে বিভিন্ন তথ্যসূত্রে আরব আমিরাতে বসবাসরত হিন্দু জনসংখ্যা ১০ লক্ষের উপরে বলে দাবী করা হয়েছে।

আরব হিন্দু

আরব আমিরাতের স্বাধীনতা পরবর্তী ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ডে অংশ নিতে ভারত, বাংলাদেশ ও পাকিস্তান হতে প্রচুর সংখ্যক অভিবাসী শ্রমিক ও পেশাজীবি পাড়ি জমান আরব আমিরাতে। স্বাভাবিকভাবেই আরব আমিরাতের বর্তমান হিন্দু জনসংখ্যার বেশীরভাগই ভারতীয় বংশোদ্ভূত। আরব আমিরাত বিশেষ করে দুবাই, আবুধাবি ও শারজাহর মতো শহরের ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ করছে ভারতীয়রা।

আরো পড়ুনঃ এক কালের হিন্দু দেশ আফগানিস্তানে বর্তমানে কী হিন্দু আছে?

আরব আমিরাতের দুবাইয়ে আমিরাতের প্রথম হিন্দু মন্দির প্রতিষ্ঠিত হয় ১৯৫৮ সালে। শেখ রশিদ বিন সাঈদ আল মক্তুমের অনুমতিক্রমে এই মন্দিরটি নির্মিত হয়। এরপর দীর্ঘদিন আরব আমিরাতে আর কোন নতুন হিন্দু মন্দির প্রতিষ্ঠিত হয়নি। দীর্ঘ প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে আরব আমিরাতের আবুধাবিতে নির্মিত হচ্ছে আমিরাতের ২য় মন্দির এবং মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে বড় হিন্দু মন্দির।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের প্রেসিডেন্ট শেখ খলিফা বিন জায়েদ আল নাহিয়ান হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের জন্য উপহার হিসেবে মন্দিরের জায়গা দিয়েছেন।

আরব আমিরাতে হিন্দু

১৩.৫ একর জায়গাজুড়ে এ মন্দির নির্মিত হচ্ছে। ২০১৮ সালের ফেব্রুয়ারিতে সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে প্রথম হিন্দু মন্দিরের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এ মন্দিরটির অবস্থান দুবাই-আবুধাবি হাইওয়ের কাছে আবু মুরেইখাহ অঞ্চলে। ২০২০ সালের মধ্যে পূর্ণ মন্দিরটি নির্মিত হওয়ার কথা রয়েছে।

আরো পড়ুনঃ মুসলিম দেশ মালয়েশিয়ায় হিন্দু ধর্মের হাজার বছরের গৌরবজ্জ্বল ইতিহাস

অন্যান্য দেশের মতো বৃহৎ পরিসরে না হলেও আমিরাতের হিন্দুরা দিওয়ালী ও হোলির মতো উৎসব নিজ নিজ কমিউনিটিতে বেশ গুরুত্বের সঙ্গে পালন করেন।

আরব আমিরাতে হিন্দু ব্যবসায়ী ও পেশাজীবিরা ব্যবসা-বাণিজ্য ও চাকরীর উচ্চপদস্থ পদে আসীন আছেন। আরব আমিরাতের ধনাঢ্য হিন্দু ব্যবসায়ীদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন, ল্যান্ডমার্ক গ্রুপের চেয়ারম্যান ও প্রতিষ্ঠাতা মিকি জাগতিয়ানী, রবি পিল্লাই গ্রুপের প্রতিষ্ঠাতা রবি পিল্লাই।

সংযুক্ত আরব আমিরাতে হিন্দু
আরব আমিরাতের ধনাঢ্য হিন্দু ব্যবসায়ী মিকি জাগতিয়ানী

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
error: Content is protected !!