হিন্দু ধর্মের অজানা কাহিনী

জেনে নিন নিয়মিত ওম মন্ত্র পাঠে কি কি উপকার হয়

ওম মন্ত্র সনাতন ধর্মানুসারীদের নিকট অত্যন্ত পবিত্র। যেকোন পূজা বা ধ্যান করতে হলে ওম মন্ত্র অবশ্যই উচ্চারণ করতে হয়। শত সহস্র বছর আগে মুনি ঋষিগণ এই মন্ত্র উচ্চারণ করতেন।

ওম মন্ত্র এতোটাই শক্তিশালী যে, এই মন্ত্র পাঠের মাধ্যমে যেকোন অশান্তি খুব সহজেই দূর হয়ে যায়। এছাড়া এই মন্ত্র উচ্চারণে মনের একাগ্রতা ও শারীরিক কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়। ওম মন্ত্র পাঠ করলে আর যে যে উপকার পাওয়া যায়, তা নিয়েই আমাদের আজকের আয়োজন।

ওম শান্তি মন্ত্র

১. মনোযোগ বৃদ্ধি পায়

ওম মন্ত্র পাঠ করলে শরীরের অভ্যন্তরে এক বিশেষ ধরনের আলোড়ন সৃষ্টি হয়। যার ফলে মনোযোগ তৈরী হয় এবং যেকোন কাজের প্রতি আগ্রহ বেড়ে যায়। পড়াশোনা ও কর্মজীবনে আরো বেশী সফলতা পেতে প্রতিদিন সকালে এই মন্ত্র পাঠের অভ্যাস করুন। দেখবেন শীঘ্রই সফলতা কাছে আসতে শুরু করবে।

আরো পড়ুনঃ কেরালার হাজার বছরের প্রাচীন মন্দির পাহারা দেয় নিরামিশাষী কুমির

২. মনের আনন্দ বৃদ্ধি পায়

প্রতিদিন সকালে ৩০ মিনিট ধরে ওম মন্ত্র জপ করলে শরীরের সকল ক্লান্তি ও শ্রান্তি দূর হয়। শরীর ও মনে একটা পজেটিভ এনার্জির সঞ্চার হয়। ফলে দেহ ও মন উৎফুল্ল হয়ে ওঠে।

৩. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পায়

যেকোন ধরনের রোগকে দূরে রাখতে ওম মন্ত্র ভীষণ কার্যকরী। হিন্দুশাস্ত্র থেকে জানা যায় এই মন্ত্র পাঠ করলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বেড়ে যায়। ফলে স্বাভাবিকভাবেই শরীরে সহজে কোন রোগ বাসা বাঁধতে পারেনা।

৪. মানসিক চাপ দূর হয়

আজকাল মানসিক চাপ আমাদের জীবনের অঙ্গ হয়ে উঠেছে। এর ফলে অধিকাংশ মানুষ হীনমন্যতায় ভোগেন। তবে পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে নিয়মিত ওম মন্ত্র পাঠ করলে মস্তিষ্ক ও শরীর শান্ত ও সতেজ থাকে। ফলে মানসিক চাপও দূরে পালায়।

শান্তি মন্ত্র বাংলা

আরো পড়ুনঃ অজ্ঞাতবাসের সময় পাকিস্তানের এই শিব মন্দিরেই নাকি আত্মগোপন করেছিলেন পঞ্চপাণ্ডব

৫. হৃদরোগের সমস্যা দূর হয়

আধুনিক জীবনের খুব সাধারণ একটি রোগ হৃদরোগ। যেকোন মুহূর্তে যে কেউ হৃদরোগে আক্রান্ত হতে পারে। কিন্তু আপনি জানেন কি প্রতিদিন নিয়ম করে ওম মন্ত্র জপ করলে দেহের রক্তচাপ একদম স্বাভাবিক হয়ে যায়। ফলে হৃদযন্ত্র সহ সারা দেহে রক্ত প্রবাহ স্বাভাবিক মাত্রায় চলে আসে। আর একইসাথে হৃদরোগও সহজে কাবু করতে পারেনা।

৬. ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়

উজ্জ্বল ও সুন্দর ত্বকের জন্য আজকাল আমরা কতোই না কসরত করে থাকি। অথচ ওম মন্ত্র জপের মাধ্যমে খুব সহজে বিনা খরচে ত্বকের উজ্জ্বলতা ও কমনীয়তা বৃদ্ধি করা যায়। প্রতিদিন ওম মন্ত্র পাঠ করলে আমাদের দেহে যে পজিটিভ এনার্জির সঞ্চার হয় তাঁর প্রভাব পড়ে আমাদের ত্বকে। ফলে রোজ ওম মন্ত্র জপ করলে ত্বক হয়ে উঠবে আগের চেয়েও কমনীয়।

৭. সাইনাসের সমস্যা সেরে যায়

আমাদের মধ্যে অনেকেই সাইনাসের সমস্যায় ভুগে থাকি। সাইনাসের সমস্যার কারণে মাথা যন্ত্রণা ও চোখ যন্ত্রণার মতো সমস্যাগুলো হয়ে থাকে। তবে ওম মন্ত্র উচ্চারণ করলে আমাদের ভোকাল কর্ড ও সাইনাসে স্পন্দন তৈরি হয়। ফলে খুব দ্রুত সাইনাসের সমস্যা সেরে যায়।

৮. থাইরয়েড জনিত রোগের প্রকোপ কমে

আধুনিককালে আমাদের জীবনযাত্রা যতোটা সহজতর হচ্ছে, তাঁর সাথে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বিভিন্ন রোগের প্রকোপ। আধুনিক জীবনের অন্যতম একটা প্রধান সমস্যা থাইরয়েড জনিত রোগ। তবে নিয়মিত ওম মন্ত্র পাঠ করলে থাইরয়েড গ্ল্যান্ডের কোন সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা দূরীভূত হয়।

ওম শান্তি ওম

আরো পড়ুনঃ প্রেমের বিয়েতে বাধা? এই মন্ত্র জপ করলে সব বাধা কেটে এই বৈশাখেই বিয়ে হবে!

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
error: Content is protected !!